জীবনে বাস্তবমুখী হওয়ার প্রতি গুরুত্বারোপ

0
359

নিশ্চিতভাবে জেনে রাখো, তুমি তোমার সকল আকাঙ্খা পূরণ করতে পারবে না এবং নির্দিষ্ট সময়ের অধিক জীবনযাপন করতে পারবে না। তুমি তাদের পথেই চলেছো যারা তোমার পূর্বে এপথে ছিল। সুতরাং পার্থিব উপকরণ সঞ্চয়ে নমনীয় হও এবং যা অর্জন করেছো তা ব্যবহারে উত্তমপন্থা অবলম্বন কর। কেননা, পার্থিব উপকরণ সঞ্চয়ে অতিশয় বাড়াবাড়ি অনেক সময় লুটতরাজের পরিণতি বয়ে আনে। সুতরাং প্রত্যেক জীবিকা অনুসন্ধানকারী তাদের কাঙ্খিত জীবিকা লাভ করতে পারে না এবং কোন মধ্যপন্থী অনুসন্ধানকারী তার জীবিকা হতে বঞ্চিত হয় না। প্রতিটি নিচ জিনিস থেকে নিজকে দূরে সরিয়ে রেখো যদিও বা এসব নিচ জিনিস তোমাকে তোমার ইপ্সিত লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারে; কারণ তুমি নিজের যেপরিমাণ সম্মান নষ্ট করছো তার সমপরিমাণ মূল্য অর্জন করতে পারবে না। অন্যের গোলাম হয়ো না; কারণ আল্লাহ তোমাকে স্বাধীন জীব হিসেবে সৃষ্টি করেছেন। যে ‘কল্যাণ’ মন্দ মাধ্যম ব্যতীত অর্জিত হয় না তাতে কোন কল্যাণ নেই এবং গর্হিতপন্থায় কষ্টের মাধ্যমে যে আয়েশ অর্জিত হয় তাতেও কোন শান্তি নেই। সাবধান, লালসার বাহন যেন তোমাকে নিয়ে ধ্বংসের ঝরনায় নামিয়ে না দিতে পারে। যদি তুমি পার তোমার নিজের ও আল্লাহর মাঝে কোন সম্পদশালীকর্তা  উপস্থিত না করে চলতে তাহলে তাই কর। কেননা, তুমি তোমার জীবিকা পাবেই; তুমি তোমার অংশ লাভ করবেই। মহিমান্বিত আল্লাহর কাছ থেকে সামান্য কিছু পাওয়া তাঁর বান্দার কাছ থেকে অনেক পাওয়া অপেক্ষা অনেক বেশী  ও মর্যাদাশীল। যদিও সবকিছুই মহান আল্লাহর।
 
তুমি নীরব থেকে যা হাতছাড়া করেছো তা অপেক্ষা যা কথা বলে হাতছাড়া হবে অনেক সহজতর। কেননা, যাকিছু মশকে আছে তার মুখ শক্ত করে আটকে দেওয়ার মাধ্যমে তা সংরক্ষণ করা যায়। তোমার হাতে যা আছে তা রক্ষা করা অন্যের হাতে যা আছে তা চাওয়া অপেক্ষা উত্তম ও পছন্দনীয়। অন্যের কাছে যাচনা করা অপেক্ষা নৈরাশ্যের তিক্ততা অনেক ভালো। অন্যায়ভাবে  হাতে আসা অঢেল সম্পদ অপেক্ষা সততার সাথে পরিশ্রম করা অনেক ভালো। প্রত্যেক ব্যক্তি নিজেই তার গোপন রহস্যের সর্বোত্তম প্রহরী।
যা ক্ষতিকর তার জন্য মানুষ অনেক সময় সংগ্রাম করে। যে বেশী কথা বলে সে বোকার মতো কথা বলে। যে ভেবে দেখে সে উপলব্ধি করতে পারে। ধার্মিক লোকদের সাথে মেলামেশা করো; তাতে তুমিও তাদের একজন হয়ে যাবে। পাপী লোক থেকে দূরে সরে থেকো, তাতে তুমি নিরাপদ থাকতে পারবে। হারাম খাদ্য সর্বাধিক নিকৃষ্টতম বস্তু। দুর্বলের প্রতি অত্যাচার নিকৃষ্টতম অত্যাচার।
যেখানে কোমলতাকে কঠোরতা মনে করে সেখানে কোমলতার পরিবর্তে কঠোর আচরণ কর। অনেক সময় চিকিৎসাই পীড়া বৃদ্ধি করে আর পীড়াই চিকিৎসার ভূমিকা পালন করে। অনেক সময় অশুভাকাঙ্খী সঠিক উপদেশ দেয় এবং শুভাকাঙ্খীও প্রতারণা করে। কখনো আশার ওপর নির্ভরশীল হয়ো না, কারণ আশা হচ্ছে বোকার সম্পদ। কারো অভিজ্ঞতা সংরক্ষণ করা জ্ঞানের পরিচায়ক, তোমার সর্বোৎকৃষ্ট অভিজ্ঞতা হলো তা, যা তোমাকে উত্তম উপদেশ দেয়।
সুযোগ হাতছাড়া করে আফসোস্‌ করার আগে এর সৎব্যবহার করো। সকল যাচনাকারী যা চায় তা পায় না এবং সকল প্রস্থানকারী আর ফিরে আসে না। পরকালের সহায় ও উপকরণসমূহ নষ্ট করার মানেই হলো ধ্বংস প্রাপ্ত হওয়া।
প্রত্যেকটি বিষয়ের একটা পরিণতি আছে। যা তোমার জন্য নির্ধারিত তা সহসাই তোমার কাছে এসে পৌছাবে। একজন ব্যবসায়ী ঝুঁকি গ্রহণ করবেই। অনেক সময় ক্ষুদ্রও বৃহৎ পরিমাণ অপেক্ষা উত্তম। যেভাবে একজন ইতর লোককে সাহায্য করে কোন লাভ নেই ঠিক তেমনী সন্দিহান বন্ধুর বন্ধুত্বে কোন মঙ্গল আশা করা যায় না। দুনিয়া যখন তোমার মুষ্টিগত থাকে তখন নমনীয় হও এবং আরো বেশি পাওয়ার আশায় নিজেকে ঝুঁকিতে ফেলো না। শত্রুতার অনুভূতিতে ভর করে চলা থেকে বিরত থাকো।

Share

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY